আগে মাতৃত্বের পরীক্ষা, তারপর বিয়ে!

বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার মানেই হলো ‘গেল গেল জাত গেল’ শোরগোল, সভা, সালিশ ইত্যাদি। কিন্তু প্রতিবেশি দেশ ভারতের এক আদিবাসী সম্প্রদায়ে বিয়ের পূর্বশর্ত মাতৃত্বের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। দেশটির পশ্চিমবঙ্গের এক প্রত্যন্ত অঞ্চলে এমন রীতি প্রচলিত রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ার জেলার উত্তরপ্রান্তে ভুটান সীমান্তে একটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বাস। নাম ‘টোটো’। টো টো সম্প্রদায়ের মেয়েদের বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা বা মা হওয়াটা বাধ্যতামূলক। সেখানে মাতৃত্বই দেয় পছন্দের পুরুষকে বিয়ের অধিকার। ওই অঞ্চলটি টোটোপাড়া নামে পরিচিত। অধিবাসী মাত্র দেড় হাজারের মতো। টোটো সমাজে বিয়ের নিয়ম হলো কোন মেয়ে একজন পুরুষকে পছন্দ করবে। তারপর দুই পরিবারের সম্মতিতে ওই পুরুষের সঙ্গে একবছর সহবাস করতে হবে। এরমধ্যে Continue reading আগে মাতৃত্বের পরীক্ষা, তারপর বিয়ে!

ভারতের যেখানে ‘লিভ-ইন’ বৈধ

‘লিভ-ইন’ বা বিবাহপূর্ব নারী-পুরুষ একসঙ্গে থাকা নিয়ে ভারতীয় সমাজের বিতর্কের শেষ নেই। এমনকী সুপ্রিম কোর্টও এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেছে। অথচ, ভারতের রাজস্থানের জয়পুরের নয়াবাস গ্রামে গ্লসিয়া জনগোষ্ঠী কয়েক শতক ধরে ‘লিভ-ইন’ সম্পর্ক পালন করে আসছে। এমনকি শুধু প্রাপ্ত বয়স্করাই নয়, সেখানে লিভ-ইন করতে পারে অল্প বয়সী, বিধবা বা বিবাহ বিচ্ছিন্নরাও। পুরুষ ও নারীর মিলন মানেই যে তাকে বিবাহের রূপ দিতে হবে এটা মনে করে না গ্লসিয়ারা। তাদের মতে, বিবাহের অর্থ বংশ বৃদ্ধি। সুতরাং, বিয়ের আগে পুরুষ এবং নারী একে অপরের সঙ্গে বসবাস করে যদি দেখে তারা সন্তান উৎপাদনে সক্ষম, তবেই তারা বিবাহের পথে অগ্রসর হতে পারে। এমনকী, সন্তানের জন্ম দেওয়ার Continue reading ভারতের যেখানে ‘লিভ-ইন’ বৈধ