বেশি পড়াশোনার কারনে যা ঘটে থাকে…

বই একজন মানুষের সব থেকে ভাল সঙ্গী। যে কোন যায়গায়, যে কোন সময় বই হতে পারে সব থেকে ভাল সাথী। আপনি একটি ডায়রীকে সব কিছু বলতে পারবেন। একটি বই এর গল্পের সাথে সারাদিন কাটাতে পারবেন। বিভিন্ন বদভ্যাস দূর করতে বই সব থেকে বেশী কার্যকরী। তাই, যখন আপনি অতিমাত্রায় বই পড়া শুরু করবেন, তখন কিছু পরিবর্তন আসবে আপনার জীবন প্রণালীতে। সেগুলো হল- ১. বিষণ্ণতা থেকে মুক্তি পাবেন: যখনই আপনি কোন কিছু থেকে দূরে চলে যেতে চাইবেন, তখন কোন ধূমপান বা খারাপ কোন নেশার জগতে না যেয়ে বইকে আপনার সঙ্গী বানান। একটি লাইব্রেরি কার্ড তৈরি করুন বা নেট থেকে বিভিন্ন বই ডাউনলোড Continue reading বেশি পড়াশোনার কারনে যা ঘটে থাকে…

অল্প পরিশ্রমে হাঁপিয়ে উঠলে কি করবেন

একটু জোরে হাঁটতে গেলে নিঃশ্বাস ঘন হয়ে আসে, শরীর অত্যধিক ঘেমে যায়, কারও কারও শরীরের ঘামে জামাকাপড় ভিজে যায়, বুক ধড়ফড় করে, বুকে চাপ অনুভূত হয়, গলা (চাপা) ব্যথা শুরু হয়ে যায়, অবস্থা বেশি জটিল হলে হাঁটতে গেলে বুকে জ্বালা জ্বালা বা চাপ চাপ ব্যথা অনুভব হতে পারে। কারও কারও হাঁটতে গেলে মাথা ঘোরে, বমি বমি ভাব হয়, একটু তাড়াতাড়ি করে কোনো কিছু করতে গেলেও এসব লক্ষণ পরিলক্ষিত হতে পারে। এসব অবস্থাকে এককথায় হাঁপিয়ে উঠা বা পেরেশান হওয়া বলা যেতে পারে। মানুষ সুস্থ সবল অবস্থায়ও হাঁপিয়ে উঠে, যেমন- খুব বেশি দৌড়ঝাঁপ করার সময়, কোনো ধরনের অতি পরিশ্রমের কাজ করার সময় Continue reading অল্প পরিশ্রমে হাঁপিয়ে উঠলে কি করবেন

অতিরিক্ত চিনি ডেকে আনবে ১৫ বিপদ

অতিরিক্ত চিনি খাওয়া যেকোনো ব্যক্তির জন্যই ক্ষতিকর। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন মতে একজন স্বাভাবিক মানুষের প্রতিদিন গড়ে ২৫ গ্রাম বা ছয় চা চামচ পরিমাণ চিনি খাওয়া যেতে পারে। প্রতিদিন এর চেয়ে বেশি চিনি খেলে তা যেসব স্বাস্থ্যগত সমস্যা ডেকে আনতে পারে তা তুলে ধরা হলো এ লেখায়। ১. ক্যাভিটি চিনি খাওয়ার ফলে দেহের যেসব ক্ষতি হয় তার মধ্যে অন্যতম হলো দাঁতের ক্ষতি। দাঁতের এনামেল নষ্ট করার জন্য অন্যতম দায়ী উপাদান চিনি। এটি দাঁত ক্ষয়কারী ব্যাকটেরিয়ার খাদ্য জোগায়। ২. ক্ষুধা বেড়ে যায় দেহের ক্ষুধার মাত্রা নির্ণয় করার একটি উপাদান হলো লেপটিন। খাওয়ার পর এ উপাদানটি জানিয়ে দেয় কখন আর খাবারের দরকার Continue reading অতিরিক্ত চিনি ডেকে আনবে ১৫ বিপদ

কঠিন পড়া মনে রাখার কিছু কৌশল

লেখাপড়া বেশিক্ষণ মনে রাখতে পারেন না? কোন পড়া সহজে মুখস্থ হতে চায় না, কিংবা কঠিন কিছু বারবার চেষ্টা করেও শিখতে পারেন না? যতই চেষ্টা করুন না কেন, পরীক্ষার হলে গিয়ে সব ভুলে যান? আপনার সমস্ত সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এই ফিচারে। জেনে নিন খুব সহজে কোন কিছু শিখে ফেলার দারুণ কার্যকরী ও বৈজ্ঞানিক ৫টি কৌশল। কেবল লেখাপড়া নয়, অন্য যে কোন কিছু শিখতেও কাজে আসবে। ১) চোখ দেখবে, কান শুনবে, মস্তিষ্ক বুঝবে কঠিন পড়াগুলো জোরে জোরে উচ্চারণ করে পড়ুন। তবে কেবল জোরে উচ্চারণ করলেই হবে না, শুনতে হবে খুব মন দিয়ে। একই সাথে বিষয়টা বোঝার চেষ্টাও করতে হবে। যে অংশ্তি Continue reading কঠিন পড়া মনে রাখার কিছু কৌশল