বেস্ট ফ্রেন্ডের সাথে সম্পর্কে জড়ালে যে ১০ টি ব্যাপার ঘটে !

বন্ধুত্বের সম্পর্ক অনেক মধুর একটি সম্পর্ক। সত্যিকারের একজন বন্ধু অপর বন্ধুকে যতোটা জানেন এবং বোঝেন অন্য কারো পক্ষে এতোটা বোঝা মনে হয় সম্ভব না। বন্ধুত্ব অনেক গভীর হলে দুজনে কী ভাবছেন, কোন জিনিসটি নিয়ে ভাবছেন তাও মুখ দেখে আন্দাজ করে ফেলা যায়। বন্ধুত্ব এমনই একটি জিনিস।

কেমন হয় যদি এই সত্যিকারের ভালো বন্ধুটির সাথেই গড়ে ওঠে প্রেম বা দাম্পত্যের সম্পর্ক? সত্যি বলতে কি, সম্পর্কের অনেক সমস্যাকেই তখন আর সমস্যা মনে হয় না। অনেক কিছুই শুধুমাত্র একই মনমানসিকতার কারণে সমাধান হয়ে যায় খুব সহজে।

১) তিনি আপনার ভেতরের আসল মানুষটিকে দেখতে পাবেন সব সময়। যেহেতু বন্ধুদের মধ্যে অনেক কথাই শেয়ার হয়, সেহেতু একজন আরেকজনকে অনেক ভালো মতোই চিনে থাকেন। তাদের মধ্যে সম্পর্ক হলে কারোরই লুকানোর কিছু থাকে না।

২) সব কথা সব ধরণের সমস্যা অকপটে বলে ফেলা যায় কোনো ধরণের দ্বিধা ছাড়াই। এই সুবিধাটি সাধারণত প্রেমিক/প্রেমিকারা পান না। কিছুটা হলেও দ্বিধার কাজ করে মনে।

৩) অনেক সময় প্রেমিক/প্রেমিকার মধ্যে মনোমালিন্য হলে দুজনেরই ভালো বন্ধুরা বুঝতে পারেন। যখন ভালো বন্ধুটিই আপনার প্রেমিক/প্রেমিকা হবেন তখন আপনার সবকিছুই আপনার বন্ধুর জানা থাকবে। মনোমালিন্য হলেও তা বেশিক্ষণ থাকবে না। আপনাআপনিই কথা বলে ফেলবেন।

৪) আপনারা যদি অনেক পুরোনো বন্ধু হয়ে থাকেন এবং আপনাদের পরিবারের মানুষজনও আপনাদের খুব ভালো করে চিনে থাকেন। তবে পারিবারিকভাবে কোনো সমস্যা পোহাতে হবে না একেবারেই।

৫) বন্ধুত্ব তখনই হয় যখন মনের, চিন্তা ভাবনার ও মানসিকতার মধ্যে মিল থাকে। এই জিনিসটি সম্পর্কের ক্ষেত্রে অনেক ভালো কাজে দেয়। একই ধরণের যারা চিন্তা করেন তাদের মধ্যে বাহ্যিক কোনো কিছুই সমস্যা তৈরি করতে পারে না।

৬) সাধারণ প্রেমিক/প্রেমিকাদের মতো ‘এটা করবে না, ওটা হবে না, এভাবে করোনি কেন’ ধরণের সমস্যা কখনোই বন্ধুদের মধ্যে তৈরি হয় না। তারা খুব ভালো করেই জানেন কে কী করতে ভালোবাসেন।

৭) ভালো বন্ধুরা একে অপরের অভ্যাস বদঅভ্যাস সকল কিছু সম্পর্কেই অবগত থাকেন। তাই সম্পর্কে জড়ালে তা নিয়ে সমস্যা হওয়ারও কিছু থাকে না। কারণ এইসব কিছু মিলিয়েই বন্ধুত্ব ছিল তাদের মধ্যে।

৮) সাধারণ প্রেমের সম্পর্কের মতো কোথায় ছিলে, কী করছ এই ধরণের প্রশ্নের উত্তরের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফোনে কথা বলার প্রয়োজন হয় না। কারণ দুজনেই দুজনের কাজ কর্মের তালিকা বেশ ভালোভাবেই জানেন।

৯) দুজনেই দুজনের দোষত্রুটি সম্পর্কে জানেন। তাই যখন একজন কোনো দোষ করেই ফেলেন তখন অন্য জন সাধারণ প্রেমের সম্পর্কের মতো অভিমান করে বসে যান না। বরং বন্ধুদের মতো বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করেন।

১০) দুজনের লক্ষ্যে মিল থাকে অনেক। যেকারনে একজন অপরজনের লক্ষ্যে পৌঁছুতে যতোটা সাহায্যের প্রয়োজন পাওয়া যায়, যা অনেক সময় নিজের প্রেমিক/প্রেমিকার কাছ থেকে পাওয়া যায় না।

Likes(3)Dislikes(0)

Click Here to get update news always
প্রতি মুহুর্তের আপডেট পেতে এখানে ক্লিক করন
আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

One thought on “বেস্ট ফ্রেন্ডের সাথে সম্পর্কে জড়ালে যে ১০ টি ব্যাপার ঘটে !

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*